Skip to main content



কথাদের কথা : পূজা নন্দী

কথাদের কথা

১.
বলো বললে আর কিছুই বলার থাকে না
যেন পরের পাতায় পৌছে যাওয়া যায় কথাদের ভাঁজে, কিছু হুম বিষয়ক বক্তব্য ব্যক্তিগত হয়ে ওঠে, একটা বেলপাতা স্নানের ঘরে স্নিগ্ধ হয়ে এলে, আমি ভিজিয়ে দিতে পারিনা সেসব অনুযোগদের

বিস্তর আমির মাঝে সংজ্ঞা হীন তোমার ঢেউ

কেবলই উছলে ওঠে লাল চায়ের কাপ অথবা সর্ষেক্ষেত, ধেয়ে আসার বহর সাজানো সোপান তছনছ করে, বাদ পড়ে যায় পর্বত প্রমাণ চূড়ান্ত কথোপকথন...




২.
এত আষ্ঠেপৃষ্ঠে উঠে যাচ্ছে শরীরে
রুহু না তুমি পর্যন্ত এসে থেমে গেছে
গড়িয়ে যাচ্ছি জলের ভেতর
গরাদের ওই প্রান্তে কিছু যা কিছু ভালোবাসা জমে আছে
শতাব্দীর শেষে আরও একটু বেড়ে ওঠে
ভেতরে ঢুকে যেতে দেখি অভিশাপ গুলোকে

পড়ে পড়ে বাসি হয়ে আসছে অঙ্গভঙ্গী
ধার করা জানালা তোমাকে উপহার দেব বলে তুলে রেখেছি
ভাসতে চাইছি ভালো থাকার নতুন কোনো সংজ্ঞায়
তবু কিছু হক আপনি বেড়ে ওঠে
বসে যায় গত জন্মের হিসেবের খাতা নিয়ে

ভালাবাসার রোদে খারাপ থাকা শুকিয়ে নিলে অনুভব ভিজে ওঠে
আর যদি অনুভব শুকিয়ে নাও
তবে খারাপ থাকারা ভেজে
এভাবে মাঝে মাঝে মূর্ত  আমিকে বিমূর্ত হয়ে যেতে দেখি
আর তোমরা আমার অবস্থান নির্ণয় করতে গিয়ে ছায়ার সাথে কথা বলো

এভাবে ভেবো না স্বাধীনতা হারানোর কথা
এভাবে ভেবোনা বন্যার কথা
এভাবেও ভাবতে পারো আজন্ম মানুষ জন্মের কথা....



৩.
কিছু গন্তব্য তোমার থেকে শুরু হয়
সব গন্তব্য তুমি নও
ঠিক যেমন বাঁকের পর বাঁক আসে সশব্দে
আর শহর জুড়ে কেবল গল্প লেখা বদলের
এবার বেশক উঠে পড়া সকাল হতে পারো
কখনো এক বিকেল থেকে অন্য  বিকেল যেভাবে গন্তব্য হতে পারে...


পূজা নন্দী

Puja Nandi

Comments

Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS