Skip to main content

Posts

Showing posts from October 16, 2016



বাপি গাইন এর কিছু লাইন, যারা লেখা হয়ে ওঠে

বাপি গাইন এর কিছু লাইন, যারা লেখা হয়ে ওঠে
একটা আইসক্রিমের পাহাড়। পাহাড়ের মাথায় চেরি ঘুমিয়ে আছে। একটা উলের বল। বল না। কারণ নিজেই দৌড়াচ্ছে। ভেড়া। পাহাড় গলছে, উত্তুরে হাওয়া সত্ত্বেও। ভেড়া গোল গোল দৌড়াচ্ছে পাহাড়কে নিকটবর্তী রেখে। যাতে চেরির রং ফেটে সত্যিটা ছড়িয়ে না যায়।
~~~

24th October, 2016 | Minerva Theatre | 6.30pm : An evening of অ্যাKto

দমবন্ধ হয়ে আসছে! যেটুকু নিঃশ্বাস নিতে পারছি শুধু মর্গের গন্ধ… নর্দমার গন্ধ... পোড়া ডিজেলের গন্ধ... বারুদের গন্ধ!
এত মারছে কেন? এত মরছে কেন? ঘরে বাইরে, এখানে সেখানে, দেশ দেশান্তরে!!! টিভি খুললে, কাগজ খুললে শুধু মরা আর মারার খবর!
নাকে পচাগলা মৃতদেহের গন্ধ আসে... ঠান্ডা একটা দমবন্ধ করা অন্ধকার!!!
পৃথিবীটা যেন মর্গে পরিণত হয়েছে। কিন্তু আমরা তো চাই না এই মর্গের পৃথিবী। সাধারণ মানুষ মারতে চায় না, মরতে চায় না! মানুষ চায় এক শান্তির পৃথিবী, যেখানে থাকবে না কোনো কাঁটাতার।
আমরা চাই পৃথিবীতে মর্গের গন্ধ নয়, থাকবে শুধু ফুলের সুবাস।

মায়া : কৃতি ঘোষ

মায়া
স্থান, স্থানু, জঙ্গা তিন-মালা ভেদ করে ঋতু চলে আসবে সাবলীল পদ্ধতিতে যতটা সাবলীল হলে তুমি প্রথমবার চিৎকার করবে না ভয় পেয়ে যতটা সাবলীল হলে প্রতি মাসে নিজের হাতে পরিস্কার করতে পারবে অপরিপক্ক ভ্রূণ”
-      এসব দুটাকা-তিনটাকার কথা বলে কি আর রাজ্যজয়ের স্বপ্ন দ্যাখা যায় ঈশ্বর? রাজ্যজয় বোঝ? কোন গ্রামের সবটা পাকাধানে মই দিয়ে দাও, কোনও গ্রামের সব কুমারী মেয়েকে সঙ্গমের সময় ফিসফিসিয়ে বলো তোমাদের আর দ্যাখা হবে না কখনও, হ্যাঁ- তারপর- তারপর সিংহাসনে বসলেই না তা সঠিক অর্থে রাজ্যজয়!

একটি দীর্ঘ লেখা নিয়ে সুপ্রিয় কুমার রায়

বিকার সারান
যতই থাকুক চাঁদ আকাশে দেখতে নিজেকে জলেই নেমে আসে... উঁচু থেকে নিচুতে এমনি ভাবেইহয় যোগাযোগ এভাবেই হারছি আজকাল জানতে পারছি কিছু আছে অভিনয় ছাড়া!! যারা আমার কাছে মুখোশ বিক্রি করে খাচ্ছিল আমায়,রোজ ভয় দেখায়,বলে, শালা মরবি, রাতে ঘুম হবেনা,বুঝবি কেমন হয়।আমি গীটারের তার গুলো ঝ্রাং করে মারি, চোখের নিচের কালোয় ওরা ডুবে মরে। এইচ. আই. ভি, ক্যান্সার, আরও কিছু  রোগ আছে যাদের ওষুধ এখনো নেই, এরমই একটা অসুখ কি সম্পর্ক? না মানে কিছু দিন ধরে শুনছি একটি আঠা নাকি বের হতে চলেছে যা সম্পর্ক জোড়ালাগায়। ইতিমধ্যে ছাড়াছাড়ি হওয়া সম্পর্ক থেকে শুরু করে সম্পর্ক গড়বার ইচ্ছে রাখা লোকেরা এমনকি ২৫ বছর সম্পর্কেথাকা লোকেরাও নাকি আগাম বুকিং করেছে সেই আঠা। কে জানে! সেদিন টিভি তে দেখছিলাম একজন সাংবাদিক শরমি নামে এক বেশ্যাকে জিজ্ঞেস করছে আপনি কিনবেন না সেই আঠা? সে হেসেবলে আমরাই আঠা!! তো যাই হোক এই অভিনয় আর সম্পর্ক একটি রেললাইনের দুটি পাত! মানুষেরসাথে দেশের দেশের সাথে বিদেশের হতে পারে। এতো লাগালাগি হচ্ছে একটি বাচ্চা জন্ম নেবেনা হতে পারে! খাছুর খুছুর স্লাপ প্লাপ আওয়াজ করতে করতে জন্ম নিল অর্থ (ছেলেটি ভালবাসে মেয়েটি বাসেনা ছেলেটি ব্যাংকে চ…
Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS