তিনটি লেখা নিয়ে এলেন : অমিত দে

শুক্লপক্ষ
বয়েস ভাসছে ক্যানেলের জলে
আকাশ আজ অমর হলেও
তোমার উরুতে গ্রহন লেগেছে
পায়ে পায়ে কাটা ফোটেনি
কুলগাছ পাহারাদার আর ধানশিষ
বারবার কেন মাধবীলতা—
সুতোয় সুতোয় ঘুড়ি হওনি
পাশ কাটিয়ে ভেসে থাকা
ফেটে যাওয়া বেলুন
দিগন্ত খুলে দিয়েছি
অস্ত দেখতে পাচ্ছি না কেউ
জোয়ার ভাটায় মুছে যায়
         আমাদের দিনরাত





মৃত হরিণ
খোলা মাঠে খাঁচা বুনছে লোকটি
অনেকে ভিখারি বলে

একদিন এসেছিল বুনো হরিণ
আজ সে ডোরাকাটার নকশা তুলতেই ব্যস্ত
আঙুলের ডগা থেকে
জলবিন্দুর মতো ঝেরে ফেলছে ছবি

একপ্রকার পিচ্ছিল গন্ধ পেয়ে বসেছে তাকে




চার দেয়াল
ডালভাতে ঘর গেরস্থ হলে
ঝুঁকে পড়ি  নেমন্ত্রণে
এক্কা দোক্কার মত খেলা
খেলতাম আমরা
সবুজের সাথে থেকে
দেখে গেছি পাথরের স্তূপ---

একান্ত জরুরি কিছু হাসি
ছবিতে খোদাই হয়ে যায়

দিকভোলা সকল বাউলের
একটাই আপনঘর
বর্ষার পেখম আর
                 চিড়িয়াখানা










অমিত দে
Amit Dey
Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS