Skip to main content

Posts

Showing posts from January 15, 2017



কবিতা সিরিজ বা একটি কবিতা : দীপ শেখর চক্রবর্তী


এই বোকা শহর আমাকে নরম ভেজা ঠোঁটে নিরাপদ চুমু খায়, রোজ
আমি পুরনো বন্ধুদের মাতাল বেশি রাত ডাকে হয়েছি নিরাপদ
পুরনো কম্বলের ভেতর আদরে ভুলিয়েছি গলিদের প্রাক্তন প্রেমিক
আমি পুরনো ভোরেদের ঊরুতে শুয়ে নিজেকে চমৎকার প্রেমিক ভেবেছি
হটাৎ একটা আচমকা মোলায়েম মুখের অপেক্ষায় জটিল অসুখ বাধিয়েছি রাস্তার পাশে খোলা জানলায়, বুক চিতিয়ে-



কতটা নিরাপদ হলে মানুষ সংসার গড়ে এ প্রশ্ন আমি খোদ সংসারকেই করেছি
আগুন তো আসলে ছাই এর খুড়তুতো ভাই, আমি সূর্যের সৎ ছেলে?
তুমি মাথায় আঙুল দিয়ে খোঁজো নিরাপত্তা। এটুকুই তো চাই। তা ছাড়া বাকি সব তো পাবেই কবিতায়।
অনেক বয়স হলে বুঝবে তুমি,এসব পালানো নয়,বরং সত্যির কাছে যাওয়া
সত্যির কাছে গ্যালে নিজেকে অন্ধ বাঁশিওয়ালার সুরে পুড়িয়ে নিতে হয়
জীবনে হয়েছ তুমি তা কেবল এক খানা নিরাপদ মোলায়েম ছাদের পাহারাদার
চেনা গন্ধ ছাড়া বাকি সব সয়ে নিতে হয়।

একটি জ্বরের সিরিজ : অনন্যা বন্দ্যোপাধ্যায়

জ্বর ১
ভীষণ জ্বরের ভেতর তোমার কথা ভাবতে ভালো লাগে গায়ে চাকা চাকা দাগ পড়ে আছে পড়ে আছে উত্তপ্ত নাভি কমলা ফুলের মত তুমি শুয়ে আছো পাঁজরের তীরে আমার সমস্ত দেহে জেগে ওঠে এক অলীক আওয়াজ প্রতিটা পরমাণু প্রাচীন থেকে প্রাচীনতায় মেলে তারপর যা কিছু স্নেহ, হিসেবের ব্যবধান, তুমি ধার করে নিলে দিগন্তে পৌঁছে যায় অলীক পাখা যে ক্ষণিকের পর অবশ হয়ে যায় দেহ রাত পার করে নাবিকেরা আমাকে তাদের কথা বলো এই ফাঁকে আমি আরো তোমায় ভেবেনিই ভেবেনিই আমাদের আবছায়া কথোপকথন


Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS