Skip to main content

Posts

Showing posts from May 21, 2017



তিনটি কবিতা : শানু চৌধুরী

ভাগাড় হেঁটে যাই পথের বুকে ভাগাড় দেখে ফেলি চোখের পর্দায়
ময়লা স্তুপে ধ্যানস্থ শিশু সদ্যোজাত খেলনার ভাঙা টুকরো
অস্বাস্থ্য ব্যাঞ্জো বাজবার পথে রোজ অজানা উচ্ছিষ্টের  লড়াই
সব্জি কাটা হয় ন্যুব্জ হওয়া ঘরে উনুনের পাশে জ্বলন্ত পেট
শকুন নেই এই শহরে ছিনিয়ে নেওয়ার প্রতিদ্বন্দ্বী নালার ভ্রুনে
বুলডোজার লক্ষ ইতিহাস ফেলে ইতরের দিকে ঝড়ের ইঙ্গিত রেখে যায়


ঘষা কাঁচ এই ঘষা কাঁচের বর্ডারে আমাদের বাষ্পের ক্লাস
ধ্রুপদী শব্দের ভিতর হারিয়ে যাই যখন ছোটদের সিনেমা ভিজে যায়
রাস্তা, স্যাঁতসেঁতে রংরুট সমস্ত স্বপ্নবাড়ির চুপিসার
আদর করছে শরীর বৃষ্টিকে?
কফিকাপ কতটা দূরে পড়ে আছে কান্না ভাগাভাগির পর
জানালার  পর্দা ওড়ার নেশায় যেটুকু নশিন

তিনটে লেখা : দীপঙ্কর লাল ঝা

ধানচাল ধান দেবেন, চাল দেবেন পাখি দেবেন দু একটা নাম দেবেন শীঘ্র থালায় মেলে দেবেন কিচিরমিচির আমার ঘরে বারান্দা নেই, তাই বলে গরম দেবেন না নখের আওয়াজে বিভোর হই এমন একটা অসুস্থতা আমারও আছে কানের ভেতর আমরা ধীরে ধীরে ডিমে তাপ দেবো মাথা ফুরিয়ে যাবে আর সেদিকে অল্প অল্প করে মশার উত্তাপ নিতে নিতে আমাদের হাড় জল হয়ে গেছে এমন একটা মশলা কেউ এই মুহূর্তে আবিষ্কার করেনা যাতে একটা সুস্বাদু সুপ হতে পারি, এই নিয়ে বালে ছাল, ছালে বাল কসাই বলেছে, না করতে নেই ধুকপুক ধুকপুক একটা সূর্য চাই এসো আচার হয়ে শুয়ে পরি টকটক নৌকায়।

Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS