Skip to main content



ম্যাড মঙ্ক ~ শুভ আঢ্য


ম্যাড মঙ্ক
২১
সে বেরাদর, আমার দ্বিতীয় সত্তা, আমি বিম্ব
আধার সে, এইভাবে যৌনতা ছাড়িয়ে, নেশা ছাড়িয়ে
সে আমায় বাঁচিয়ে রাখতে চায়, ঈশ্বরের অধীনে আমাদের
কথা হয়, ঈশ্বরের অনুশাসন আমায় শেখায় ব্রাদার ম্যাকারি
বলে - ওই যে মাছ, তার প্রাণটুকু দেখো, তার চলাচল
জলকে ঘিরে ওঠা, তার কানকোর তলাটুকু দেখো,
তার দেহ অলীক, তার নিষ্পলক চাওয়া মিথ্যা, শুধু
সে তোমাকেই দেখে না, এ বিশ্বকে দেখে, মৃত্যুর পরও
সে তার চোখ খুলে রেখেছে, মিথ্যা সে, শুধু দেখো
তার ঝাঁক থেকে সে বেরিয়ে এলো, তার বন্ধন থেকে,
অথচ তার তো বন্ধন ছিল, ছিল তো মায়া... সে আমাকে
ঘিরে এই গোলগোল কথা শোনায়, আর ভাবে আমার
বোধ তা ধরে ফেলছে, আমার বুদ্ধি তা নিলয়ে নিচ্ছে

কথা শুনি ম্যাকারির, তার হাতে ফলের মাঝে দেখি
এক বন থেকে আসা অসংখ্য রসস্ফীত ফল
আমাদের সামনে, দেখি কারও রঙ কমলা
কিছু বা সবুজ, কিছু বেগুনী আর সব আমার চোখে
সাদা হয়ে ওঠে, তার হাতে বরফ ছাড়া দেখতে পাই না
কিছুই; সে উৎস চেনালে আমি তার বিকিরণটুকু দেখি
তার অধরা আসমান থেকে যীশুর ছাঁচটুকু দেখি
ধ্বনির সময়ে প্রতিধ্বনিটুকু খুঁজি, এভাবেই সে আমার
চোখ আঁকতে চায়, ঠোঁট কাটতে চায়, কানে গাঁথতে চায়
শব্দ, বেহায়া গ্রিগরি আমি ম্যাকারির আদলটুকু দেখি
তার কার্যটুকু দেখি, কারণ পাই না দেখতে


২২
ধর্মেরও আধার প্রয়োজন, সাইপ্রেস গাছেদের নীচে
অথবা ওকের বনে তাদের আধার, যদিও
এ এক কল্পনা, এই সত্যের সাথে ওক বনের মধ্যেকার
হাওয়ার দুরত্ব নিয়ে কৃষকেরা ভাবে না, তারা নিরক্ষর
আর তোমরা সাধারণ রাশিয়ান ভাবো, তাদের দৈবাৎ
ঈশ্বর ডেকেছেন নৈশভোজে, তাদের দৃষ্টি আলাদা,
বর্ণের বাইরে বর্ণান্ধ যারা তারাই বর্ণ ভালোমতো চেনে

তাই প্রয়োজন স্টারেডস, তোমাদের কথা মাটির ভেতর
থেকে যারা দেখে ফেলবে, যারা মাটির মধ্যে প্রসববেদনা
দেখে গাছেদের ভাষায় বুঝিয়ে দেবে যন্ত্রণা তোমাদের
তোমরা অনুভব করতে চাও, সেই শীতের রাতে ম্যাকরি
'কথা জানিয়েছিল আমায়, অথচ নিরক্ষর
আমিও সাইপ্রেস গাছের ভেতর ঘুরে বেড়াই, আর
অর্থোডক্স গির্জার শেষ্প্রান্তে পৌঁছাই, তোমরা কি আমাকে
ঈশ্বরের পাশে তার দূত বলে মেনে নেবে? যে লোকটা
শুধুই যৌনভুখ, যার দৃষ্টি মানে তোমাদের অন্দরে
ঝুলে পড়া স্তনের দোলন, যার দায় ওক বনে কাঠ
জোগাড় করে শৈত্যকে সামাল দেওয়া, তাকে
মোমের আলোয় নিয়ে যাবার আগে, বারংবার ভেবে
নাও, ম্যাকারি, ওদের চেতনা তলানিতে, এসময়
কোনো সঙ্গম মানসিকভাবে ক্ষতিকর, বোঝাও!


২৩
ধর্মেরও আধার প্রয়োজন, সাইপ্রেস গাছেদের নীচে
অথবা ওকের বনে তাদের আধার, যদিও
এ এক কল্পনা, এই সত্যের সাথে ওক বনের মধ্যেকার
হাওয়ার দুরত্ব নিয়ে কৃষকেরা ভাবে না, তারা নিরক্ষর
আর তোমরা সাধারণ রাশিয়ান ভাবো, তাদের দৈবাৎ
ঈশ্বর ডেকেছেন নৈশভোজে, তাদের দৃষ্টি আলাদা,
বর্ণের বাইরে বর্ণান্ধ যারা তারাই বর্ণ ভালোমতো চেনে

তাই প্রয়োজন স্টারেডস, তোমাদের কথা মাটির ভেতর
থেকে যারা দেখে ফেলবে, যারা মাটির মধ্যে প্রসববেদনা
দেখে গাছেদের ভাষায় বুঝিয়ে দেবে যন্ত্রণা তোমাদের
তোমরা অনুভব করতে চাও, সেই শীতের রাতে ম্যাকারি এ'কথা জানিয়েছিল আমায়, অথচ নিরক্ষর
আমিও সাইপ্রেস গাছের ভেতর ঘুরে বেড়াই, আর
অর্থোডক্স গির্জার শেষপ্রান্তে পৌঁছাই, তোমরা কি আমাকে
ঈশ্বরের পাশে তার দূত বলে মেনে নেবে? যে লোকটা
শুধুই যৌনভুখ, যার দৃষ্টি মানে তোমাদের অন্দরে
ঝুলে পড়া স্তনের দোলন, যার দায় ওক বনে কাঠ
জোগাড় করে শৈত্যকে সামাল দেওয়া, তাকে
মোমের আলোয় নিয়ে যাবার আগে, বারংবার ভেবে
নাও, ম্যাকারি, ওদের চেতনা তলানিতে, এসময়
কোনো সঙ্গম মানসিকভাবে ক্ষতিকর, বোঝাও!


২৪
প্রিয় ফিওডোরভনা, তোমার গ্রিশকা সালামৎ
অযথা সুখের মাঝে এই ক্ষুৎকাতর দিনগুলো
বড় মূল্যবান, যেমন ওই দরজার পাশে নিজের অতীত,
নিজের লজ্জা, রাত পেরোচ্ছে ওইসব শীতের নভেম্বর
আর দেখো এইসব কখনই আমাদের ধর্মের জুতোয়
ঢাকা পড়বে না, এইসব সংযম আমাদের ভেতর
কখনও বলে উঠবে না - শুধুই অবস্থানের বদল
আমাকে সাধুতা দিয়েছে, পোকরোভস্কোয় থেকে
এতদূরে আমি সীসার ভেতর থেকে দেখতে পাচ্ছি কিভাবে
কাচ, আয়না হয়ে আমাকে চেনাচ্ছে, কিভাবে
ঘোড়াগুলো নিজের বাইরে এসে সাদা হয়ে যাচ্ছে,
শান্তির রঙ রাশিয়া থেকে দূরে মাটিতে মিশছে
এই মাটিই সত্য, এর নীচেই নিয়তি, যদিও আপাতত
গ্রিশকা কফিনের ভেতর শান্তির আবরণটুকু নিয়ে
আর জলবায়ু নিয়ে ভাবে, যেন তার ভেতর একদিন
শীতের রাত্রে ৫২৩ কিলোমিটার পেরিয়ে সিল্যুয়েট
ছবি হয়ে ঢুকে পড়তে হবে, দাঁড়াতে হবে সেই দিনগুলোর
সামনে যখন গ্রামবাসী তাকে বোকা গ্রিগরি বলে
বিতাড়ন করেছিল প্রায়, আর তার খিদের কথা
তোমার সন্ততির ভেতর সূচিপ্রয়োগ করেছিল


শুভ আঢ্য
Subha Adhya

Comments

Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS