Skip to main content



Ansuman

মূর্তিপুজো

শান্তিনিকেতন গুঁড়ো হচ্ছে
অদৃশ্য বিকিনি ফাঁদে চঞ্চল মোরাম
কোনো কিছুর কোনো মানে নেই
যেমন
জলীয় বাষ্পের রূপান্তর দোহাই
তেহাই। চারহাত এক হলে শ্লীল
রাজনীতি‌ বলছে আমার দুঃখে
তোমার দুঃখ
তোমার দুঃখে আমার
অথচ বাদামি ভিখিরির চোখে আজো
আমি দেখছি নিঃসঙ্গ টেলিভিশন।




কসমিক বাউল দেখছে রজঃশ্বলাকে।
দেখার মধ্যে
কোনো প্রতিদান থাকেনা। পাল্টানো
পৃথিবী থাকে। অনিন্দ্য,
আমি নরম হতে পারিনা
নরম হতে
পারি
না।
বাউল রজঃশ্বলাকে কসমিক দেখছে।



ব্রাকেট হয়ে থেকো তুমি নিরালায়।
মাকড়সার সৌন্দর্য্যে আনতশির
স্তবকে
হারতে
পারবেনা তুমি
আমি স্পাইডারম্যান হয়ে
পুড়ে যাবোই। নোঙরামি বলতে আমি
এটুকুই বুঝি...
… অথবা অন্যকিছু।



ক্যাপসি প্রকৃত কাম পেলে
আহ! রামটি আমি খাবো ঢেলে
এমন দগদগে শরীর-সাইকি
আবেগবিহীন
ধনেপাতার ঘ্রাণ
শব্দে শব্দে যৌনতার সাউন্ড,
আমার মৃত্যূ ঘনিয়ে আসছে
হে আমার মৃত্যোৎপন্নমতিত্ব!

বহ্নি মৃত্যূ শিখা মৃত্যূ
বারি মৃত্যূ ধারা মৃত্যূ

ওহ! শুধুই টেক্সট টেক্সট, কবি
তোর অক্ষর নাই!



এই যে জ্যোৎস্নার ভেতর দিয়ে হেঁটে চলেছি
ওপর দিয়ে...
নীচ দিয়ে...
এই বিভাব আমার
সন্তানকে বোঝাতে পারছিনা।
সেও হেঁটে চলেছে এই জ্যোৎস্নার ভেতর দিয়ে
ওপর দিয়ে...
নীচ দিয়ে... আর
মায়ের কথা ভেবে কাঁদছে।
কুঁড়েঘর আছে, প্রদীপ আছে, আলো নেই।
তাই এই জ্যোৎস্নার ভেতর দিয়ে ছুটে চলেছি
ওপর দিয়ে...
নীচ দিয়ে...
...কোনো প্রতীকই বোঝাতে পারছিনা।











   অংশুমান
Ansuman
Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS