Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS

Debasis Mukhopadhyay

অক্ষর লিপি

১.
শহরের গাছ। ঘুম পাড়িয়ে রাখছে ভবঘুরেদের। পলিথিনে
ভাত। চটকে গ্রাস তুলছে ভিখিরি মেয়ে।

ডোরাকাটা রাস্তা। পেরোলেই
খাবার আর খাবারের মানুষ। গাড়ি আর মোবাইল। কেউ থামতে না পেরে বিগড়ে গেলে
দেরি হয়ে যায়।

ঘোড়া চলে আসে। খাকি উর্দি
সওয়ার। থমকে যায় বাজার জনতা। ভুলে যায় আবদার টেডি পাখির

পাখি বেরোতে না পারলে ঘরের
অস্বস্তি আর ডানারা আকাশ পেলে হারিয়ে যায় আস্ত শহর...



২.
ইচ্ছে। থাক তাকে। নামিয়ে আনব না
ডানা লাগিয়ে উড়িয়ে দেব।  না আকাশে কাশের মেঘ অনুর্বর জমিকে সুন্দর চেষ্টায়

টান। তুলিতে পড়লেই। তুলি ফোটায় ফোটো ছবি। বিনা ক্যামেরায়
রায় ঘোষণা হয়ে যায় সাদা এজলাসে

লাশ। বিড়ালের। রক্ত নিয়ে শুয়ে। শু রাখার বাক্সের পাশে। পাশবালিশ নেই। ইতি শব্দ নিয়ে না পাঠানো চিঠি
ঠিকানা না পেয়ে পড়ে সেখানেই

নেই নেই করেও দেখি কিছু রয়ে গেছে
অ্যালবামে বাম হয়ে...



৩.
শ্লেট শরীরে। শূন্য স্থানে স্বরবর্ণ
নামাই। অপূর্ব ব্যঞ্জনে তুমি ফোটো। বনলতা বনফুল পায়।
নুপূর বাজনায় কুচযুগ শোভিত যে এলো সে হাতেখড়ির সরস্বতী

ছেলেবেলার প্রথম কম্পন। ঠোঁটের ভাষার। কাপড়ের মন্ডপে ঝড়। নতুন পৃথিবী। শিখিয়ে নেয় লাবণ্যের পাঠ। বয়ঃসন্ধির
সন্ধি বিচ্ছেদ

প্রাণের আকাশে । এতো বর্ষণ মুখর দিন। নৌকার টালমাটাল।
খুচরো ছড়িয়ে পড়ে। লক্ষ্মীর ভাঙা ভাঁড়ে খোলাম কুচির যন্ত্রণাও

বারোমাস্যা গায়। ছাইভস্মের
সংসারে উমা ফেরে। পদ্ম শালুক
পেরিয়ে ঘেঁটুফুলের ক্লিপ খোঁপায়। গুঁজে দিলে মাই
কার্তিকের কান্না চুপকথায়...









    দেবাশিস মুখোপাধ্যায়

Debasis Mukhopadhyay

Popular Posts