Jyotirmoy Shishu

Jyotirmoy Shishu

Soubhik Dutta


ডুবুরীভাষ্য

তীর ফুরিয়ে আসা নোঙর। গাছ ফুঁসলে উঠছে। সহজিয়া এই ছায়ামিতি। ভুল সম্প্রসারন। রাখা আছে ছায়া তৈরীর পদ্ধতি। নির্মিত যত্ন চলে যায়। যেভাবে বস্তুপাঠ চেতনার বাইরে কোনও জীকর, আয়তর সাদাদিঘি। মোম বদলে যাচ্ছে চোখের, বদলে যাচ্ছে মনবদলের ভাগ্যবিচার। পাতার অংশে প্রেম রাখা যাচ্ছে না। ভাবো আহিস্তায় ট্রেন থেমে আছে, গোড়ালির আনাচে রাখা নীল আয়োজন। ভিজতে ভিজতে ঘর যখন নদী, টুকরো টিপ নামছে শহরতলীতে। সমস্ত আঙুল জুড়ে কোনও শিহর কোনও কুয়াশাটপের জুম। ল্যাটিটিউড বদলে যায় তারানার একটা প্রকাণ্ড শীতকাল ভেসে উঠবে বলে।

আজানরহিত এই সান্ধ্যদৃশ্যে সংশোধন আশ্রম হয়ে আসে। রোদ্দুর শেখানো

এই সহবাসে রাস্তা খুলছে দুপুর আর পেটভর্তি নার্সারীরা চলে যাচ্ছে সূর্যের তলানীতে।

বেহাগ সমুদ্রের শেষে নখ ফুটেছে ঘরময়। এখন ছায়া থেকে নিভে আসা প্রয়োজন।






সান্ধ্যনিবাস - ২

ঝুঁকি ভাবলেও
টোল খায় যে অন্ধকার
জিপসী ছড়িয়ে ঘরময়
তার যত্ন
আর সাদা বালি
ওঁ থেকে চুল ও নখবিহীন
এই পাতানো সংসার
জড়োয়া পায়
ফুলেল ছড়ানো
সবটুকু ওই ধানশালী
টুকরো দাঁড়ানো মাঠজুম
ঘরে ফেরা অসম্ভব বেহাগ শেখাচ্ছে...




সান্ধ্যনিবাস - ৫

আসবে জেনেই
জন্মদিন কাটা হলো
মোমেলসীমায় ঘুমভর্তি
বাদাম ও বন্দুক
ছিনিমিনি চলে যায়
পাঁজরের বাঁদিক বাজিয়ে
সেদ্ধ এই সেতুপ্রবণ দুর্ঘটনা
মায়াবীলেবুর তনখার অনেকটা
দূরবাহিত থেকে বর্ষা
খসে যাচ্ছে
নদীক্রিমে তুমি
সাঁতার ভাসিয়েছ অনেকবার
মহুয়াছমে যখন
পাতায় বন্দুক ভাসছে
মায়া হই
আদরের দৈনিকে টুকরো করি
গুলাল অভ্যাস
ছিন্নভিন্ন জানালার কোনও পোষানাম... 












   শৌভিক দত্ত
Soubhik Dutta