Subhajit Ghosal

এখানে রেশ্মা নেই !

ভালোবাসা বয়ে আনে বুদবুদি ফেনা,
তবুও নিরর্থক,মরশুমের শুরুর মতো
হাতের চামরা ওঠে।পুরোনো বালিশ
বিছানা রোদ,কবেকার অ্যান্টাসিড,
তোষোকের তলার চিঠি
বিচ্ছিন্ন আলস্যের উত্তর দিয়ে গেছে।


হীরক নরমের মতো শহরের রাস্তা
জমির আলের মতো সহজ ভাষায়
কিছু দামাল হালুম মোরা।
প্রেম-টেম ভালোবাসা বুদবুদি ফেনা।



বিসর্গ.

(১)
হে ঈশ্বর,
এ বালক সুচের মতো তীক্ষ্ণ
অতীব লাস্য ইহার মুখে
ন্যায় মায়া তাহার ললাটে
ইহা প্রেম চায়,ইহা শুধু
জল চায়।
এ বালক গৌড়, বাম স্তনের
নীচে তিল, নাসারন্ধ্রের ব্যাস
পৃথিবীর মতো
এ বালক প্রেম চায়
প্রভু
প্রাণীবিদ্যা থাকে যা দেয়নি।



(২)
তোমার জন্ম, তোমার লাশ হয়ে যাওয়া। বড় প্রাকৃতিক ভাবে যুবকের প্রথম রাত, যৌন রাত, হাত দেয় জন্ম যোনিতে। কেয়া ফুলে টুপটাপ শিশির পড়েছে সারারাত, বৃষ্টি ভুলে গেছে শহরের পথ, শহরে সকাল হলে মা’ও গেছে ভুলে মায়েদের ভুলে যেতে হয় যুবক সকাল দেখছে বলে।


(৩)
আমি যার উপর নির্ভরশীল
তা শ্লথতা
তোমাকে রোধ করবার কোন
উপায় আমার নেই
বাস্তবতা আমাকে নিরুপায় করেছে
তা বলে, ভালবাসতে আমরা কেউ ভুলিনি
ভালবাসতে আমরা কেউ শিখিওনি।


(৪)
বহুদিন ধরে এরম একটা দিন চাইছিলাম।
আমার অবিকল গাছ তোমায়
তোমায় কতবার এভাবে চেয়েছি
শব্দের মেদুরতা বা প্রবণতা
সব তোমাকে উদ্দেশ্য করে গাছ
আমার খরগোশ পোষা
ওদের খেতে দেওয়ার প্রবণতা
সব তোমার জন্য গাছ
আমার মৃত্যু,আমার কবিত্ব জ্বরা
তোমাকে বৃক্ষ করে তুলুক।













  শুভজিৎ “মেহরিন আলফাজ্‌” ঘোষাল


Subhajit Ghoshal