Dipankar Basak

সাপ লুডো!!

অগভীর খাড়ির মুখে শূন্যতার কাঁচা ফেনা
কতকাল আগে উড়িয়েছিল জয়বার্তা...
নিষ্ঠুর বাহুর পেশিতে উপচে পড়া বিচিত্র প্রস্তাব
মচকানো বাঁচার বিয়োগে ভস্ম পাতার মুকুট।

শ্যাওলার অতলে ডুবে গেছে যে খাঁচার পাখি
ভাসমান খড়কুটোয়
উদ্বাস্তু শিবিরে একাকী
তার কোনও ভাষা নাই
অন্ধ বেদনায় গুলিয়ে ফেলা মদে
আর কঠিন রাত যাপনে।

বুকের ভেতর উড়ে আসা বীজ সমাপতন মুহূর্তেই
মধ্যবয়সী রাতকে উজা করতে
ডাক দেয় সাদা নীরক্ত ঘুমের পাশে
আনমনে।

আঙুল দিয়ে টেবিল ঠুকি নদী ছাড়িয়ে
অরণ্য নামতেই দৃশ্য বদল
সাপ লুডো খেলছে সময়।




গল্পের কথা

বেঁচে থাকার যোগফলে মৃত্যু বিয়োগে
আর সমীকরনে মচকালো গল্পগাথা,

রাত বয়ে চলেছে নিষ্ঠুর হাসিতে
সাদা কালো মাটির কলসে
বীজ বপন করতে বাতাসের
ত্রিকাল অমাবস্যায় শতাব্দী প্রাচীনে
দুইপাট খোলা জানালায়।

ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষিত এখানে বারবার
ঢেউয়ের পর ঢেউ ঠোঁটের কাছে
নীল জলে আপন বিস্তার আমার

দেখা যাক আর কি কি হয়...





নাটকীয়

শিশিরের পায়ে হারানো সকাল
যেভাবে চলে যায় জামার আড়ালে
এলোমেলো অক্ষরের ফাঁক গলে
শরীর থেকে ক্রমশ শরীরবিহীনে।

জনবহুল যৌবনে জোয়ার চলাকালীন
কাঁটার ব্যবচ্ছেদে যেতে চায় মন
আর কঠিন চিহ্নরা ঝরে পড়ে
শস্য মিনারের ওপর।

নাঃ আর কোনো বিরোধিতা নেই
নতুনের ভাবনায় সমান্তরাল উজান
পথে ঘাটে নির্মাণ ইছামতি
প্রেয়সী ছুঁয়েছে বর্ষা একহাতে।

চচ্চড়ি দিয়েছে মেঘের ধুন
দেড়খানা রুটিতে মাখামাখি হয়ে
জন্ম দিয়েছে সন্ত্রাস।



   





দীপঙ্কর বসাক

Dipankar Basak