Arup Ratan Ghosh

কবিতার খাতা

আমার কবিতার খাতা পেয়েছে ঈশ্বরের স্পর্শ
স্পষ্ট অক্ষরে সে লিখে গেছে ৩টি শব্দ
WATER-HOME
রাজা (এবং)
বাঁটু

ছবিও এঁকেছে এক, তবে তা নেহাতই নৈর্ব্যক্তিক,
কয়েকটি রেখার সমাহার মাত্র –
তথ্য বিনিময় অংশত অসম্ভব এখানে

কেবল নির্জনতা নয়
অদূরে জনগন আছে, রাজধানী আছে
ফলতঃ ঈশ্বরের হাতের লেখা আমি দেখাই না আর
সাবধানবাণীর মতই একান্তে রয়েছে তা
জানুয়ারী মাসের প্রথম সপ্তাহে
কেনা কবিতার খাতায়



গুরাস

অকল্পনীয় সুরায় ভরে গেছে এই ভোর
চাঁদের দুপাশে --
অল্প বিশ্বাস রেখে চলি,
দেখি, হাতের তালুতে ব্রোমিন মিশেছে আজ
পায়রার ওড়া সব মিশেছে আকাশে।

আকস্মিক, মেঘের মধ্যে এক ব্রিজ ভেসে ওঠে --
জলপ্রপাতের ডাক,
চার ঘন্টা হাঁটতে হবে এখন
মধ্যপথে নাকি দেখা যাবে
পাথরের খাঁজে বিশ্রামের মত সুশীলার মুখ
আটকে রয়েছে কোথাও !




ডুয়ার্স

ক.
নৈশাহার সেরে ভিন্নতর কিছু নয়,
বৃষ্টির রাতে দুর্গের কথা আলোচনা করি –

শ্বাপদ সংকুল এই জনপদ;
কাছেই কোথাও ক্ষিপ্র চিতাবাঘ পিটিয়ে মারা হয়েছে
ঘুনাক্ষরে আছে তুমুল হর্ষ। যদিও কেউ কেউ
সংশয়াতুর দৃষ্টিভঙ্গী থেকেও বিষয়টি বিচার করছেন


খ.
শরীরের কাছেই পূর্বপুরুষদের ফটোগ্রাফ,
এই রাত্রে অক্লেশে
রূপোবাঁধানো ছড়ি হাতে তাদের আর্তনাদ
এবং গঞ্জালেসের বউ-এর বানানো মদের সুস্বাদ
মিশে যাচ্ছে স্ফটিকপাত্রে, স্মৃতিবিভ্রমের মত !









অরূপরতন ঘোষ

Arup Ratan Ghosh