Skip to main content

Posts

Showing posts with the label Poetry



ভোর ~ মহম্মদ ওয়াহিদার হোসেন

ভোর
১ একলা ভোরের মতো হারানো গুনগুনের বাইরে ভোর হচ্ছে আমার সবচেয়ে প্রিয় ভোর যে পাখিটি ভীষণ, নীলপাড়।
২ এখনো পাখিডাক শুনি ভোর হলে ভোর হলে, সত্যি ভোর হয়?









মহম্মদ ওয়াহিদার হোসেন MD Wahidar Hossain

দানা দানা গ্যারাণ্টি পানিফল অথবা স্যাণ্ডউইচ নির্মাণের সহজ প্রণালী ~ নীলাব্জ চক্রবর্তী

দানা দানা গ্যারাণ্টি পানিফল অথবা স্যাণ্ডউইচ নির্মাণের সহজ প্রণালী
আবার কাঁচের গায়ে আটকে যাচ্ছে একটা অস্পষ্ট ফুটো ফুটো দিন। ক্রমশঃ শরীর হচ্ছে একরকম ব্যবহার। ফল করছে। ভেঙে যাওয়া জলেদের ঘরবাড়ি। কাট। যেসব আশ্চর্য ছুঁয়ে থাকা। বিদ্ধ হয়। রেডিও-তে প্রতিটি এফ.এম. চ্যানেলে একটাই বিজ্ঞাপন বাজতে থাকে। আসুন আসুন... দানা দানা গ্যারাণ্টি পানিফল... শুধু আমাদের প্রচার-গাড়িতেই পাবেন... যেকোনো একটি পুরনো বিকেলের পরিবর্তে নিয়ে যান ৫০০ গ্রাম দানা দানা গ্যারাণ্টি পানিফল... আর ১ কেজি পানিফলের জন্য রেখে যান বাতিল হয়ে যাওয়া যেকোনো দুটি শীতকালীন সম্পর্ক...
# * #
পুড়ছে যে অন্ধকার কার পালকে ভারী হয়ে আমি তার পায়ের পাতা অবধি ঠোঁট নামের রঙ আসছে ক্যামোফ্লেজ মাংসের ভেতর চলে যাওয়া সুর পুনরাবিষ্কার শব্দটা বরাবর ধীরে ওঠানামা করছেন একজন স্মৃতি দুজন আইসক্রীম ফোটোশপ বলতে বলতে ছবির দোকান যে দৃশ্য হেমন্ত গুঁড়ো করে ফেলল যাকে লোকে ভাষা বলে ডাকে আসলে অর্ধগোলকাকার খাঁজকাটা এক স্ফটিকবিশেষ...
# * #
ভ্রমণোত্তর একটা উঁচুনীচু ঋতু। নতুন হতে চাইছে। একে বলো পবিত্রতার কনসেপ্ট। বলো কোকা কোলা কেন আরেকটু শীতল হবে না। সারা ঘরে নড়েচড়ে শব্দরা উঠছে। রাফনেস ইনডেক্স। …

ম্যাড মঙ্ক ~ শুভ আঢ্য

ম্যাড মঙ্ক ২১ সে বেরাদর, আমার দ্বিতীয় সত্তা, আমি বিম্ব আধার সে, এইভাবে যৌনতা ছাড়িয়ে, নেশা ছাড়িয়ে সে আমায় বাঁচিয়ে রাখতে চায়, ঈশ্বরের অধীনে আমাদের কথা হয়, ঈশ্বরের অনুশাসন আমায় শেখায় ব্রাদার ম্যাকারি বলে - ওই যে মাছ, তার প্রাণটুকু দেখো, তার চলাচল জলকে ঘিরে ওঠা, তার কানকোর তলাটুকু দেখো, তার দেহ অলীক, তার নিষ্পলক চাওয়া মিথ্যা, শুধু সে তোমাকেই দেখে না, এ বিশ্বকে দেখে, মৃত্যুর পরও সে তার চোখ খুলে রেখেছে, মিথ্যা সে, শুধু দেখো তার ঝাঁক থেকে সে বেরিয়ে এলো, তার বন্ধন থেকে, অথচ তার তো বন্ধন ছিল, ছিল তো মায়া... সে আমাকে ঘিরে এই গোলগোল কথা শোনায়, আর ভাবে আমার বোধ তা ধরে ফেলছে, আমার বুদ্ধি তা নিলয়ে নিচ্ছে
কথা শুনি ম্যাকারির, তার হাতে ফলের মাঝে দেখি এক বন থেকে আসা অসংখ্য রসস্ফীত ফল আমাদের সামনে, দেখি কারও রঙ কমলা কিছু বা সবুজ, কিছু বেগুনী আর সব আমার চোখে

নবান্নে - দীর্ঘ কবিতা ~ অতনু সিংহ

নবান্নে
(বাংলাদেশের নয়াকৃষি আন্দোলন ও নিখিল বাংলার ভাবান্দোলনের সাধু-গুরু-রসিক ও সহযোদ্ধাদের পদারবিন্দে) ১ ধরো এই অগ্রহায়ণে ভোরবেলা একটা শালিক ব’লে গেল তুমি ফিরে এসেছো পাড়ায় আর রেললাইন উঠোনের পাশ দিয়ে শিল্পবিপ্লবের দেমাক না রেখেই ধনধান্যে আগায়েছে, ধরো আমাদের হাটবাজার জুড়ে তোমার মতো নতুন চালের সুবাস, সোনাগুড়, রূপাচিঁড়ে, দুধের মাহাত্ম্য, আহা কাত্তিক ঠাকুরের নারিকেল বাতাসে ময়ূর নেই তাই অভিমান করে তুমি ফিরে গিয়েছিলে?
অথচ রাজহংসীর পাখা কাহার বাঁশির টানে বাতাসে মিলায় লবন হাওয়ায় ঘোরে হরিণেরা গরান গাছের কাছে লুকোচুরি খেলে চোখ চারুময় রোদ্দুর, ঢেউ আসে ঢেউ ফিরে যায় বাঘিনী শরীরে তার মেখে নেয় বুনোচাঁদ এখানে কবি ও ফকির চন্দ্রাহত আকাশে তাকায়, বাঁশি বাজে সারারাত
ধরো এই রাশপূর্ণিমা আমাদের ছায়ার ভিতরে যে নধরচাঁদের খেলা নিস্তব্ধ শিশিরের মতো, জেগে আছে, সে জানে ময়ূরপ্রাসাদ আর সাতটি সমুন্দর, তেরো নদী পার ক'রে

তমিস্রা কবিতাসিরিজ ~ অর্ঘ্যদীপ রায়

তমিস্রা-১ একবুক মৃত্যুসংবাদ নিয়ে বসে আছো একটি শিরীষ ছায়ায় এভাবে সন্ধ্যে এলো যেন পুকুরপাড়ে বসে থাকা একটি কিশোরের শেষ ঢিলে সকাতর জলোচ্ছাস এলো। রান্না হবে বলে খোসা হারালো পটলচেরা ভালোবাসারা। তোমার দিনগুলি বক্ররৈখিক দৈনন্দিন ঘুমের মতো তাদের ভাগ্যে নাইটবাল্ব জোটেনা। বেখেয়ালে বসানো টিপ ছবিতে ব্লার হয়ে যাওয়া মুখ মেসবাড়ির কুঁয়োর পাশে রান্নাঘর থেকে ধোঁয়া আসে ধূলিমাখা তারজালি অপেক্ষা করে কখন বিষাদ মেখে তুমি বসে থাকো ব্যালকনিতে সাইকাস গাছের ছায়ায়। গভীর রাতে ডিটেকটিভের পাতা খোলা থাকে শিয়রে সাধারণ মেয়েটির আজন্মলালিত ঘুম আসে।

তমিস্রা-২ অনভ্যস্ত হাত যখন কর্মধারা খুঁজে নিতে চায় নতুন যখন ভরে ওঠা নদীর কথা ভালো লাগেনা একটি মরুভূমির বর্ষা দেখতে ইচ্ছে করে। যেভাবে কথার মাঝে গৌণ হয়ে ওঠে ভাষা যখন উজ্জ্বলতায় সাধারণী হয়ে ওঠে আলো কয়েকটি রেখা দিয়েছিলাম তোমাকে যা দিয়ে জুড়ে জুড়ে একটি পৃথিবী ভাবা যায়, কয়েকটি শব্দ যা আমার অক্ষরময় হারেমের বিসর্গগুলি। সমস্ত অলংকার খুলে তোমার কাছে আসি বসি ভাবি ভুলে যাওয়া পুকুরের কথা। তুমি আত্মমগ্ন হয়তো হয়তো খুচরো জমানোর কৌটোর শব্দটুকু আমি বেছে নিচ্ছি তোমার আটপৌরে দিনলিপি আমার কাছে উপন্যাস হয়ে উঠছে, তোমার ষাট-সত্তর-আশি-নব্…
Like us on Facebook
Follow us on Twitter
Recommend us on Google Plus
Subscribe me on RSS